খুবিতে দু’দিনব্যাপী আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় সঙ্গীত উৎসবের উদ্বোধন আগামীকাল

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সাংস্কৃতিক সংগঠন কৃষ্টি এর উদ্যোগে ১ ও ২ মার্চ ২০১৯ খ্রি. তারিখ বিশ্ববিদ্যালয় মুক্তমঞ্চে দু’দিনব্যাপী আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় সঙ্গীত উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ প্রধান অতিথি হিসেবে উক্ত সঙ্গীত উৎসবের উদ্বোধন করবেন। এই আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় সঙ্গীত উৎসবে ১২টি বিশ্ববিদ্যালয় অংশগ্রহণ করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালসমূহ হচ্ছে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, ইন্ডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ, আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নর্দার্ন ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি, নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটি।

খুবির ফার্মেসী ডিসিপ্লিনে নবীনবরণ অনুষ্ঠিত

আজ ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ খ্রি. তারিখ খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী ডিসিপ্লিনের উদ্যোগে নবীনবরণ অনুষ্ঠিত হয়। নবীনরবণ উপলক্ষে ফার্মেসী ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. আশীষ কুমার দাসের নেতৃত্বে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু একাডেমিক ভবনের সামনে থেকে শুরু করে হাদী চত্বর ও কটকা স্মৃতিস্তম্ভ এবং শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ প্রশাসন ভবনের সামনে দিয়ে পুনরায় হাদী চত্বরে গিয়ে শেষ হয়।

এসময় সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারিবৃন্দ র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন। পরে বিকেলে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

৪০তম বিসিএস প্রিলি প্রস্তুতি – আপডেট তথ্য

১.পঞ্চম কৃষিশুমারী ২০১৯ সালের কোন মাসে অনুষ্ঠিত হবে?
উঃএপ্র‍িল
২.সম্প্রতি ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে কোন বিষয় নিয়ে উত্তেজনা বৃদ্ধি পেয়েছে-
উঃপুলওয়ামায় জঙ্গি হামলা(১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯)
৩.সম্প্রতি ভেনেজুয়েলায় পাঠানো যুক্তরাষ্ট্রের ত্র‍াণবাহী দুইটি জাহাজের নাম কি?
উঃমিডনাইট স্টোন ও সেভেন সিস
৪.কিম-ট্রাম্পের দ্বিতীয় মেয়াদে শীর্ষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে-
উঃ২৭-২৮ ফেব্রুয়ারি (হ্যানয়,ভিয়েতনাম)
৫.”উরেনা” কোন দুইটি দেশের সীমান্তবর্তী অঞ্চল?
উঃভেনেজুয়েলা ও কলম্বিয়া
৬.লাতিন আমেরিকার কয়টি দেশের সমন্বয়ে লিমা গ্রুপ গঠিত হয়েছে?
উঃ১৩ টি
৭.কানাডায় লিমা গ্রুপ প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল কোন উদ্দেশ্য?
উঃভেনেজুয়েলার সংকট সমাধানে
৮.বাংলাদেশে প্রথমবারের মত রাষ্ট্রীয়ভাবে “গণহত্যা দিবস ” পালন করা হয় কত তারিখে?
উঃ ২৫ মার্চ ২০১৭
৯.২০১৯ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে নতুন ফরম্যাটে খেলা হবে?
উঃরাউন্ড রবিন
১০.আন্তর্জাতিক T-20 ক্র‍িকেটে প্রথমবারের মত টানা চার বলে চার উইকেট নেওয়ার কৃতিত্ব গড়েছেন কোন বোলার?
উঃরশিদ খান

বেগম জিয়াকে তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে — মির্জা আলমগীর

এক বছরেরও বেশি সময় ধরে কারাবন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, অসুস্থ বিএনপি চেয়ারপারসনকে কারাগারে সঠিক চিকিৎসা না দিয়ে তাকে তিলে তিলে অকালে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে।

মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ২৬, বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, বেগম জিয়া অত্যন্ত অসুস্থ, অথচ তাকে সুচিকিৎসা দেয়া হচ্ছে না, তাকে এক প্রকার মেরে ফেলা হচ্ছে। খালেদা জিয়ার কিছু হয়ে গেলে এর দায় সরকারকেই নিতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘গত সাড়ে ৩ মাসে কারাবন্দি খালেদা জিয়াকে কোনো চিকিৎসা দেয়া হয়নি। আমরা আশঙ্কা করছি, এর পেছনে গভীর কোনো ষড়যন্ত্র আছে। মূলত, তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা না দিয়ে অকালে তীলে তীলে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে। আমরা সাফ জানিয়ে দিতে চাই, দেশনেত্রীর যদি কোনো প্রকার শারীরিক ক্ষতি হয়, এর দায়-দায়িত্ব সরকারকেই বহন করতে হবে।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস-চেয়ারম্যান ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ প্রমুখ।

সুইডেনে উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার সুযোগ নিয়ে খুবিতে সেমিনার অনুষ্ঠিত

আজ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ খ্রি. তারিখ সকাল ১০ টায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু একাডেমিক ভবনের সাংবাদিক লিয়াকত আলী মিলনায়তনে পরিবেশ বিজ্ঞান ডিসিপ্লিনের উদ্যোগে আয়োজিত স্কোপ অব হায়ার স্টাডিজ ইন কার্লস্টাড ইউনিভার্সিটি, সুইডেন শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। পরিবেশ বিজ্ঞান ডিসিপ্লিনের শিক্ষক প্রফেসর ড. মোঃ আব্দুল্লাহ ইউসুফ আল হারুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ।

তিনি বলেন বিশ্বব্যাপী পরিবেশ ইস্যুটি অত্যন্ত স্পর্শকাতর এবং এই বিষয়টি এখন এই গ্রহের অন্যতম সমস্যা। জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ক্ষতি মোকাবেলা করতে না পারলে বিশ্বের অপূরণীয় ক্ষতি হবে এবং তা মানবজাতির জন্য হুমকীস্বরূপ হয়ে পড়বে। এ পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্বের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় এবং গবেষণা সংস্থার যৌথ শিক্ষা গবেষণার মাধ্যমে কার্যকর উপায় উদ্ভাবন গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করতে পারে। তিনি সুইডেনের সাথে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ শিক্ষা গবেষণার ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জীব বিজ্ঞান স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ রায়হান আলী, সুইডেনের কার্লস্টাড ইউনিভার্সিটির রিক্স এন্ড এনভায়রনমেন্টাল স্টাডিজ সেন্টার ফর ক্লাইমেট এন্ড সেফটির প্রফেসর লার্স নাইবার্গ, ড. সৈয়দ মনিরুজ্জামান এবং এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্স ডিসিপ্লিনের প্রধান (চলতি দায়িত্ব) প্রফেসর ড. আব্দুল্লাহ হারুন চৌধুরী।

উদ্বোধনী পর্বের পর সুইডেনের কার্লস্টাড ইউনিভার্সিটি থেকে আগত উক্ত দুইজন শিক্ষক গবেষক সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার সুযোগ নিয়ে পাওয়ার পয়েন্টে উপস্থাপন করেন। এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পরে ডিসিপ্লিনের শিক্ষকদের সাথে বিভিন্ন বিষয়ে সফররত সুইডেনের উক্ত দুইজন অতিথি মতবিনিময় করেন এবং বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন একাডেমিক ও গবেষণা স্থাপনা, সুযোগ-সুবিধা প্রত্যক্ষ করেন। আগামীকাল তারা খুলনা উপকূলীয় এলাকায় সফর করবেন।

উল্লেখ্য, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে যৌথ শিক্ষা গবেষণার প্রাথমিক পদক্ষেপ হিসেবে অতিথিবৃন্দ এই সফর করছেন এবং এই সফরে এমওইউসহ পরবর্তী অগ্রগতির বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করবেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ও সুইডেনের কার্লস্টাড ইউনিভার্সিটির শিক্ষক, গবেষক এবং উচ্চশিক্ষায়রত শিক্ষর্থীদের একচেঞ্জ প্রোগ্রাম। এছাড়া এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উচ্চশিক্ষার জন্য উক্ত ইউনিভার্সিটিতে ভর্তির সুযোগও ঘটবে বলে আশা করা হচ্ছে।

গানে গানে মুখরিত হবে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় – Inter University Music Fest- Orchestra’2019

গানে গানে মুখরিত হবে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়
Inter University Music Fest- Orchestra’2019
Organized by: কৃষ্টি,Khulna University
Date: #1st_March, 2019, 4:00 PM
Venue: Muktamancha, Khulna University
Participants:
1. কৃষ্টি,Khulna University
2.Band #বিস্ময় from Ahsanullah Science and Technology University(AUST).
3. Soulmate Shall Die from Daffodil International University.
4. সাদাকালো the Muzic club, B S M R S T U from Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman Science and Technology University
5.Folk based band #Section_B from Northern University of Business and Technology,Khulna.
#Special_Attraction Band Shohortoli
সাথে থাকবে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ড্যান্স ক্লাব Rhythm
Decoration and Beautification Sponsored By Karikori KarkhanaCinematography and Videography Partner- Zero Budget Films
Photography partner – Khulna University Photography Society (KUPS)
Online Media Partner- MuSophia
#Open_For_All

খুবিতে আন্তঃডিসিপ্লিন-টি ২০ ক্রিকেট প্রতিযোগিতার উদ্বোধন

খুবিতে আন্তঃডিসিপ্লিন-টি ২০
ক্রিকেট প্রতিযোগিতার উদ্বোধন

আজ ২৩ ফেব্রুয়ারি শনিবার খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে আন্তঃডিসিপ্লিন-টি২০ ক্রিকেট প্রতিযোগিতা’১৯ শুরু হয়েছে। সকাল সাড়ে ৯ টায় প্রধান অতিথি হিসেবে উক্ত প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন ছাত্র বিষয়ক পরিচালক প্রফেসর মোঃ শরীফ হাসান লিমন। তিনি উদ্বোধনী খেলায় অংশগ্রহণকারী উভয় দলের খেলোয়াড়দের সাথে পরিচিত হন। এ উদ্বোধনীতে সভাপতিত্ব করেন শারীরিক শিক্ষা ও চর্চা বিভাগের পরিচালক (চলতি দায়িত্ব) উপ-রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ শরিফুল ইসলাম। সঞ্চালনা করেন উপ-পরিচালক এস এম জাকির হোসেন। উভয় ডিসিপ্লিনের প্রধান, টিম ম্যানেজার, অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ, শারীরিক চর্চা বিভাগের কর্মকর্তা, শিক্ষার্থী ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। উদ্বোধনী খেলায় পরিসংখ্যান এবং গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা ডিসিপ্লিন অংশগ্রহণ করে এবং টসে জিতে পরিসংখ্যান ডিসিপ্লিন ব্যাট করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। উল্লেখ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৭টি ডিসিপ্লিন ক্রিকেট দল ৯টি গ্রুপে এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করছে। আগামী ১৪ মার্চ এই প্রতিযোগিতার ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে ২১ শে ফেব্রুয়ারি ভাষা শহিদদের প্রতি, ঢাকার চক বাজারে অগ্নিকা-ে নিহত ব্যাক্তিদের ও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের নগর ও গ্রামীণ পরিকল্পনা ডিসিপ্লিনের মেধাবী ছাত্রের আকস্মিক মৃত্যুতে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

খুবিতে আন্তঃডিসিপ্লিন বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

আজ ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ খ্রি. তারিখ বিকেল সাড়ে ৪ টায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য জগদীশ চন্দ্র বসু একাডেমিক ভবনের সাংবাদিক লিয়াকত আলী মিলনায়তনে আন্তঃডিসিপ্লিন বিতর্ক প্রতিযোগিতা ও শ্রেষ্ঠ নৈয়ায়িক পদক -২০১৯ এর চূড়ান্ত পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। এ বিতর্ক প্রতিযোগিতায় ২৬ টি ডিসিপ্লিন অংশ গ্রহণ করে। এর মধ্যে বিরোধী দল ডিভেলপমেন্ট স্টাডিজ ডিসিপ্লিন চ্যাম্পিয়ন এবং সরকারী দল ফার্মেসী ডিসিপ্লিন রানার আপ হয়। বিতর্কের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিলো “এই সংসদ মনে করে যে, শিক্ষার বাণিজ্যিকিকরণে কোচিং সেন্টারই মুখ্য দায়ী”।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সামাজিক বিজ্ঞান স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. শাহনেওয়াজ নাজিমুদ্দিন আহমেদ, নৈয়ায়িকের প্রধান উপদেষ্টা চারুকলা স্কুলের ডিন (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. মোঃ মনিরুল ইসলাম, এগ্রোটেকনোলজি ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. সরদার শফিকুল ইসলাম, ফার্মেসী ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. আশীষ কুমার দাস এবং ডিভেলপমেন্ট স্টাডিজ ডিসিপ্লিন প্রধান কাজী হুমায়ুন কবীর।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নৈয়ায়িকের সভাপতি আরমান ইসলাম। এ প্রতিযোগিতায় শ্রেষ্ঠ বিতর্কীক হন সরকারী দল ফার্মেসি ডিসিপ্লিনের অসিত কুমার দত্ত এবং শ্রেষ্ঠ নৈয়ায়িক আনমন রহমান। অনুষ্ঠানে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও সংগঠনের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বিইউপিকে ৩ উইকেটে হারিয়ে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় সেমিফাইনালে – আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট টুর্নামেন্ট

আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট টুর্নামেন্টে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় (খুবি) বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস (বিইউপি) কে ৩ উইকেটে হারিয়ে সেমিফাইনালে উন্নীত হয়েছে। আজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত নকআউট পর্বের ম্যাচে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় জয় লাভ করে। আমাগীকাল হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় সেমিফাইনালে লড়বে।

এই সেমিফাইনালে জয় লাভ করলে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ফাইনালে উন্নীত হবে। আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রীড়া ফেডারেশনের আয়োজনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মাঠে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এদিকে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট টুর্নামেন্টে সেমিফাইনালে উন্নীত হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেট টিমকে আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন জয়ের এ ধারা অব্যাহত রেখে এ প্রতিযোগিতায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় দল চূড়ান্ত সাফল্য অর্জনে সক্ষম হবে।

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই এসোসিয়েশন ১ম ফুটবল  টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন রসায়ন, রানার্সআপ পরিবেশ বিজ্ঞান

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই এসোসিয়েশন (KUAA) ১ম ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় পরিবেশ বিজ্ঞান ডিসিপ্লিনকে ১-০ গোলে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে রসায়ন ডিসিপ্লিন। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই এসোসিয়েশন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য এই ফুটবল খেলার আয়োজন করে। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি বনানীস্থ পানি উন্নয়ন বোর্ডের খেলার মাঠে উক্ত ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য প্রফেসর ড. গোলাম রহমান এবং বর্তমান উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান।

টুর্নামেন্টে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ১৬টি ডিসিপ্লিনের প্রাক্তন গ্রাজুয়েটদের নিয়ে গঠিত দল এ টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করে। দিনের অপর এক খেলায় ফরেস্ট্রি ডিসিপ্লিনকে হারিয়ে ৩য় স্থান অধিকার করে অর্থনীতি ডিসিপ্লিন। সর্বোচ্চ গোলদাতা রাসায়ন ডিসিপ্লিনের সোহান। ম্যান অব দ্যা ম্যাচ ও ম্যান অব দ্যা টুর্নামেন্ট নির্বাচিত হয় রসায়ন ডিসিপ্লিনের রাফসান। আজ ১৬ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত ফাইনাল খেলা প্রাক্তন উপাচার্য প্রফেসর ড. গোলাম রহমান এবং বর্তমান উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান উপভোগ করেন এবং খেলা শেষে বিজয়ী দলের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

দুই দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত এই টুর্নামেন্টে চলাকালীন সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় পাঁচ শতাধিক প্রাক্তন গ্রাজুয়েট উপস্থিত ছিলেন। এসময় খেলার মাঠ প্রাক্তন গ্রাজুয়েটদের মিলন মেলায় পরিণত হয়। রাজধানীসহ আশপাশের এলাকায় সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন গ্রাজুয়েটদের মধ্যে সম্প্রীতির বন্ধন অটুট রাখা এবং গ্রাজুয়েটদের মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে এই টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়।

এখন থেকে প্রতি বছরই এধরনের টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হবে বলে জানান এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ। খেলার মাঠে প্রাক্তন গ্রাজুয়েটরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য এবং বর্তমান উপাচার্যকে পেয়ে এ মুহূর্তকে অবিস্মরণীয় বলে উল্লেখ করেন।