Posts

৩৪তম বিসিএস পরীক্ষায় প্রশাসন ক্যাডারে প্রথম হয়েছিলেন মুনিয়া চৌধুরী

৩৪তম বিসিএস পরীক্ষায় প্রশাসন ক্যাডারে প্রথম হয়েছিলেন মুনিয়া চৌধুরী। কীভাবে তিনি বিসিএসে এলেন, পড়াশোনা করেছেন কীভাবে, অন্যদের কীভাবে পড়াশোনা করা দরকার—এসব নিয়ে কথা বলেছেন তিনি।

২০০৮ সালে এইচএসসির পর সেকেন্ড লেফটেন্যান্ট হিসেবে বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে যোগ দিয়েছিলাম। কিন্তু ব্যক্তিগত কারণে আমি ১০ দিনের মাথায় চলে আসি। তখন আমার মনে হয়েছিল এক দিন আগেও তো নৌবাহিনীর একজন সদস্য হিসেবে আমার পরিচয় ছিল, কিন্তু এখন আমি কিছুই না। ওই বছরই আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে ভর্তি হই। সেখান থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শেষ করি। আমি দুই পরীক্ষাতেই প্রথম হয়েছিলাম। কিন্তু শিক্ষকতা পেশায় কখনো যাব, সেটা প্রথম থেকে ভাবিনি।

আমার বাবা ছিলেন বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের চাকরিজীবী। তাঁকে দেখে দেখে আমারও মন টানছিল, আমিও তাঁর মতো হবে। কিন্তু বিসিএস তো সহজ কোনো বিষয় নয়। হব বললেই তো আর হওয়া যায় না। আমার কাছে মনে হয় এটি খুবই অনিশ্চিত একটি বিষয়। কারণ, আমার চেয়েও অনেক মেধাবী এই পরীক্ষায় অংশ নেন। সেটা দেখেছি যখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরিতে পড়তাম। দেখতাম প্রচুর মেধাবী বিসিএসের জন্য পড়ছেন। আমার মনে হয়েছে, বিসিএসে উত্তীর্ণ হতে পারাটা অনেক বেশি সৌভাগ্যের বিষয়। সেখানে মেধা দরকার হয়। সেখানে প্রস্তুতি থাকতে হয় ও সৃষ্টিকর্তার আশীর্বাদও দরকার হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষ করার পর আমি পূর্ণ বৃত্তি নিয়ে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স অব পাবলিক হেলথ বিষয়ে আমার দ্বিতীয় স্নাতকোত্তর শেষ করি। সেটা শুরু করার আগে থেকেই আসলে আমি বিসিএসের প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। দ্বিতীয় মাস্টার্স করার সময় কিছুদিন আমি শিক্ষকতাও করেছি। আমি ৩৪তম বিসিএসে অংশ নিই। এটা শুরুর সময় অর্থাৎ প্রিলিমিনারি পরীক্ষা থেকে চাকরিতে যোগদানের সময় পর্যন্ত সাড়ে তিন বছর সময় লেগেছিল। এই সাড়ে তিন বছরে আসলে আমি পড়ালেখার ভেতরেই ছিলাম। এর মধ্যেই আবার একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সিনিয়র অফিসার হিসেবেও কাজ করেছি।

কিন্তু মনটা সব সময় পড়েছিল ক্যাডার সার্ভিসের দিকেই। আমি মনে করি, বিসিএসে উত্তীর্ণ হতে হলে এই প্যাশন থাকতেই হবে। শুধু পড়লেই হবে না। যেমন আমি পড়েছি, আমি দিয়েছি, আমি হয়ে যাব, বিষয়টা আসলে এমন নয়। আসলে প্যাশনটা এমনই হতে হবে, আমি হতে চাই।

এখানে একটি কথা আমি বলব, যার যেটা প্যাশন, যে যেটা হতে চায়, সেটির পেছনেই সময় দেওয়া উচিত। সেভাবেই নিজেকে প্রস্তুত করতে হবে। তাহলে লক্ষ্যে পৌঁছানোটা অনেকটাই সহজ হবে।

কারও পড়ার ধরন অনুসরণ করার দরকার নেই। সবাই সবার মতো হবে না, এটাই স্বাভাবিক। একেকজনের পড়াশোনা করার ধরন আলাদা। কেউ যদি বুঝতে পারে তার ধরনটা কেমন, সেটা মেনেই প্রস্তুতি নেওয়া উচিত।

প্রিলিমিনারির সময় আমি কোনো কিছু পড়লে তা একটু বিস্তারিত পড়তাম। কেননা, লিখিত পরীক্ষার জন্য খুব একটা সময় পাওয়া যায় না।

লিখিত পরীক্ষার সময় চেষ্টা করেছি পয়েন্ট পয়েন্ট করে লিখতে। যেমন জাতিসংঘের কোনো সংস্থা নিয়ে লেখার সময় প্রথমে এটার পূর্ণ নাম, গঠনের সাল, মূল উদ্দেশ্য—এগুলো লিখে পরে ফিচার আকারে লিখতাম। আমি লেখার সময় সব প্রশ্নের সমানভাবে উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করেছি। কোনো প্রশ্নে বেশি, আবার কোনো প্রশ্নে কম লেখা লিখিনি।

শিক্ষক যেন আমার লেখা দেখেই বুঝতে পারেন, এটা অন্যদের থেকে আলাদা। তাহলে ভালো নম্বর আসবে। আমি সেভাবেই লিখিত পরীক্ষা দিয়েছি।

আমার দুই সন্তান। আমার স্বামী মো. আশরাফ সাদেক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক। বাবা সরকারের সাবেক সচিব চৌধুরী মো. বাবুল হাসান। মা শাহীনা চৌধুরী গৃহিণী। আমরা তিন বোন এক ভাই।

 

৪১তম বিসিএস প্রস্তুতিঃ ‌বিসিএস প্রিলিমিনারী পরীক্ষার গুরুত্বপূর্ণ বইসমূহঃ

৪১তম বিসিএস প্রস্তুতিঃ ‌বিসিএস প্রিলিমিনারী পরীক্ষার গুরুত্বপূর্ণ বইসমূহঃ
[এই বই কেউ ভাল করে ব্যাখ্যাসহ পড়লে(আবার বলি ভাল করে পড়তে হবে) অবশ্যই প্রিলিমিনারী পরীক্ষায় পাশ করবেন]
®® বাংলা ভাষা ও সাহিত্যঃ
১) বাংলা ভাষা ও সাহিত্য জিজ্ঞাসা – ড. সৌমিত্র শেখর
২) বাংলা ব্যাকরণ – ৯ম ও ১০ম শ্রেণি
৩) প্রফেসরস্ প্রিলিমিনারী বাংলা

®® English
১) English for Competitive Exams – Md. Fazlul Haque
২) An ABC of English Literature- Dr. M. Mofizur Rahman

®® গণিত ও মানসিক দক্ষতাঃ
১) MP3 গণিত
২) Oracle মানসিক দক্ষতা।

®® বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলিঃ
১) MP3-বাংলাদেশ বিষয়াবলি ও MP3 আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি

২) প্রতি মাসের কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স

®® বিজ্ঞান, ভূগোল, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিঃ
১) MP3 বিজ্ঞান, ভূগোল, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি
২) উচ্চমাধ্যমিক তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি – প্রকৌশলী মুজিবুর রহমান
৩) সাধারণ বিজ্ঞান – ৯ম ও ১০ম শ্রেণি
৪) মাধ্যমিক ভূগোল – ৯ম ও ১০ম শ্রেণি

®® নৈতিকতা, মূল্যবোধ ও সুশাসনঃ
১) MP3 নৈতিকতা,মূল্যবোধ ও সুশাসন
২) উচ্চমাধ্যমিক পৌরনীতি ১ম পত্র – মোজাম্মেল হক

®® সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণঃ
১) Professors Job Solution
২) এসিউরেন্স ৪০তম বিসিএস প্রিলি ডাইজেস্ট।

৪০তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় পাশ করছেন ২০ হাজার ২৭৭ জন প্রার্থী

৪০তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় পাশ করছেন ২০ হাজার ২৭৭ জন প্রার্থী

ফল আজ বৃহস্পতিবার প্রকাশিত হয়েছে। কিছুক্ষণের মধ্যে ফল পিএসসির ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাদিক প্রথম আলোকে বলেন, ৪০তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় ২০ হাজার ২৭৭ জন পাশ করেছেন। এই প্রার্থীরা এখন লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেবেন।

মোহাম্মদ সাদিক বলেন, ৩৮ তম ও ৩৯ তম বিসিএসের কাজের পাশাপাশি আমরা এই বিসিএসের ফল তৈরি করছি। সব কিছু সঠিক ভাবে যাচাই বাছাই করতে কিছুটা বেশি সময় লেগেছে।

পিএসসি সূত্র জানায়, ৪০তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষার ফল প্রকাশ করার জন্য আজ একটি বিশেষ সভা ডাকা হয়েছিল। সভায় ফল প্রকাশের সিদ্ধাান্ত হয়। কিছুক্ষণের মধ্যে ফল পিএসসির ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। চলতি বছরের ৩ মে ৪০তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

SMS এর মাধ্যমে ফলাফল জানার উপায়: আপনার মোবাইলের ম্যাসেজ অপশন থেকে PSC <space> 40 <space> Reg No. লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 নম্বরে। যেমনঃ PSC 40 12345678 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 নম্বরে।

পিএসসির তথ্য অনুযায়ী, ৪০তম বিসিএসে আবেদন করেছিলেন ৪ লাখ ১২ হাজার ৫৩২ জন প্রার্থী। পরীক্ষা দিয়েছেন ৩ লাখ ২৭ হাজার প্রার্থী। গত বছরের ১১ সেপ্টেম্বর ৪০তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি। ৪০তম বিসিএসের আবেদন গ্রহণ শুরু হয় ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে।

৪০তম বিসিএসে মোট ১ হাজার ৯০৩ জন ক্যাডার নিয়োগ দেওয়া হবে। তবে এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

ক্যাডার অনুসারে, প্রশাসনে ২০০, পুলিশে ৭২, পররাষ্ট্রে ২৫, করে ২৪, শুল্ক আবগারিতে ৩২ ও শিক্ষা ক্যাডারে প্রায় ৮০০ জন নিয়োগ দেওয়ার কথা।

বিসিএস পরীক্ষার প্রস্তুতি – প্রচলিত প্রবাদ বাক্য

  1. বাংলা কথোপকথণে বহুল প্রচলিত ৭৫ টি প্রাচীন প্রবাদ ও প্রবচন (অর্থসহ)……
    1) বিড়ালের ভাগ্য শিকা ছেঁড়া- ভাগ্যক্রমে প্রত্যাশিত সুযোগ লাভ।
    2) বিড়ালের গলায় ঘণ্টা বাঁধা- আসল ঝুঁকি নেওয়া।
    3) বুড়ো শালিকের ঘাড়ে রোঁ- বৃদ্ধ বয়সে শিশু বা যুবকের মতো আচরণ করা।
    4) বুকে ঢেঁকির পাড় পড়া- তীব্র আতঙ্কে প্রবল বেগে হ্রদপিন্ডের স্পন্দন হওয়া।
    5) বুক দশ হাত হওয়া- আনন্দিত হওয়া বা অহঙ্কৃত হওয়া।
    6) বুকে পিঠ করে মানুষ করা- অত্যন্ত আদর যত্ন করে পালন করা।
    7) বুকে বসে দাড়ি উপড়ানো- আশ্রয়দাতা বা প্রতিপালকের অনিষ্ট সাধন করা।
    8) বুদ্ধির গোঁড়ায় ধোঁয়া দেওয়া -চিন্তা করতে বসা।
    9) মাথার উপরে শকুন উড়া- অতিশয় বিপদ সন্নিকটে।
    10) মাথার ঘায়ে কুকুর পাগল-বিষম বিপদে পড়ে পাগল হওয়া।
    11) ঘাড়ে দুইটি মাথা থাকা-দুঃসাহসী।
    12) ঢেঁকির শব্দ বড়-ভিতরে যার কিছুই নেই তার বাজে বেশি।
    13) বামন গেল ঘর তো লাঙ্গল তুলে ধর-কর্মচারীদের উপর দৃষ্টি না রাখলে তারা কাজ করে না।
    14) বামন শুদ্দুর তফাৎ- আকাশ পাতাল পার্থক্য।
    15) বামনের গরু- যে ব্যক্তি বা বস্তুর নিকট অল্প ব্যয়ে প্রচুর কাজ পাওয়া যায়।
    16) বাবু বাছা করা-পুত্রবৎ সস্নেহে বাক্য বলা।
    17) বাবু বাছা বলা-স্নেহ ও আদর করা।
    18) কূলে রাখা কি শ্যাম রাখা-উভয় সঙ্কটে পড়া।
    19) বাতাসের সঙ্গে লড়াই করা- বিনা কারণে ঝগড়া করা।
    20) হাড় ভাজা ভাজা হওয়া-জ্বালাতন হওয়া।
    21) গাছে তুলে দিয়ে মই কেড়ে নেওয়া-উৎসাহ দিয়ে কর্মে প্রবৃত্ত করে অসহায় অবস্থায় সরে দাঁড়ানো।
    22) পাকা ধানে মই দেওয়া-লাভের মুখে সমূহ ক্ষতি করা।
    23) মাথা ঠোকাঠুকি হওয়া-অপ্রত্যাশিতভাবে দেখা দেওয়া।
    24) মুখ শুকিয়ে আমসি হওয়া-ভয় ব্যাধি উদ্বেগ ইত্যাদি হেতু মুখের রুগ্ন অবস্থা।
    25) যাহা বাহান্ন তাহাই তিপ্পান্ন-একটু ক্ষতির ভয়ে পশ্চাৎপদ না হওয়া।
    26) গদাই লস্করই চাল-অতি-মন্থর গতি।
    27) লেজে গোবরে ল্যাজে গোবরে-অক্ষমতার জন্য বিপদযস্ত অবস্থায় উপনীত।
    28) শিব গড়তে বাঁদর গড়া-খুব ভালো কিছু করতে গিয়ে খারাপ কিছু করা।
    29) সব শিয়ালেরা এক রা-সমদলবুক্ত সকল ব্যক্তির একই রকম মত।
    30) শুঁড়ির সাক্ষী মাতাল-অসৎ ব্যক্তিকে অসৎ ব্যক্তি সমর্থন করে।
    31) শুকনো কথায় চিড়ে ভিজানো-শুধু মুখের কথায় কাজ হয়না।
    32) শুকরের পাল ধোয়ানো-অনভীস্পিত ও গুণহীন প্রচুর সন্তান।
    33) ষাঁড়ের গোবর ষাঁড়ের নাদ-অকর্মণ্য লোক,ষাঁড়ের গোবর যেমন হিন্দু ধর্মের ধর্মকার্যে ব্যবহার করা হয় না।
    34) গোকুলের ষাঁড়- বৃন্দাবনের মুক্ত ষাঁড়ের মত স্বেচ্ছা-বিহারী দায়িত্বহীন ব্যক্তি।
    35) ষেটের বাছা,ষেটের কোলের বাছা-যষ্ঠীদেবীর অনুগ্রহপ্রাপ্ত সন্তান।
    36) ষোল আনা বাজিয়ে নেওয়া-সর্বদিক থেকে বিচার করে নেওয়া।
    37) অনেক সন্ন্যাসীতে গাজন নষ্ট-বহু কর্তায় অত্যন্ত বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা।
    38) গণ্ডূষ জলে সফরীর ফরফরানি-অতি অল্প পানিতে পুঁঠি মাছের ফর ফর করে ঘোরা।
    39) ধরাকে সরা জ্ঞান করা-মৃৎপাত্র বা সরার ন্যায় ক্ষুদ্র ও তুচ্ছ মনে করা।
    40) সস্তার কিস্তি মাত-পরিশ্রমে কোন বিষয়ে সাফল্য লাভ।
    41) সাত চড়ে রা করে না/ বেরোয় না-সমস্ত অত্যাচার মুখ বুঝে সহ্য করে।
    42) সাত নকলে আসল খাস্তা-বার বার নকল করতে করতে সূচনার যার নকল করা হয়েছে তা বিকৃত হওয়া।
    43) সাত পুরুষে না শোনা- বংশানুক্রমে না শুনা।
    44) সাতেও নেই পাঁচেও নেই-সংশ্রবশূণ্য।
    45) সাপটা ধরে কেনা-একদামে সমস্ত জিনিস কেনা।
    46) সাপের হাঁচি বেদেয় চিনে-অভিজ্ঞ লোকের লক্ষণ দেখে চিনতে ভুল করে না।
    47) সাপের হাঁড়ি-অতিশয় কোপনস্বভাবা নারী।
    48) সোনার কাঠি রুপোর কাঠি-জীবনকাঠি ও মরণকাঠি।
    49) সোনার দোয়াত কলম হওয়া-বিদ্বান ও বিত্তবান হওয়া।
    50) স্বভাব যায় না মলে ইল্লত যায় না ধুলে- পানি দ্বারা ধুলে ও নোংরামি দূর করা যেরূপ অসম্ভব।
    51) ইস্তক জুতা সেলাই নাগাদ চণ্ডী পাঠ –সংসারের চোট বড় সবধরনের কাজ।
    52) ভোজনং যত্র তত্র শয়নং হট্টমন্দিরে-যেখানে সেখানে আহার এবং হাটের চলার নিচে নিদ্রা।
    53) হাটের দুয়ারে কপাট-অসম্ভব ব্যাপার।
    54) হাড়ে বাতাস লাগা-স্বস্তি-বোধ করা।
    55) হাড়ে দূর্বা গজানো-বিপল প্রতীক্ষা।
    56) হাতে পাঁজি মঙ্গলবার-মীমাংসার নির্ভরযোগ্য উপায় থাকতে তর্ক বিতর্ক করা।
    57) হাতির ভোগ মুখে দূর্বা ঘাস-যেখানে প্রভূত ভোজের প্রয়োজন সেখানে অল্প খাদ্যর আয়োজন।
    58) অন্ধের নড়ি, অন্ধের যষ্টি-অসহায়ের সহায়।
    59) বজ্র আঁটুনি ফসকা গোড়া-কাজের আয়োজনের সময় খুব কড়াকড়ি কিন্তু কাজের সময় শিথিলতা।
    60) আঁত পাওয়া বার- মনের অভিপ্রায় জানা মুশকিল।
    61) আধার ঘরের বাতি-আঁধার ঘরের মানিক।
    62) আঁতুড়ে খোকা আঁতুড়ে ছেলে- সদ্যজাত শিশু।
    63) এঁড়ে তেল দেওয়া-চাটুবাক্য তোষামোদ করা।
    64) এক গ্লাসের ইয়ার এক সানকির ইয়ার-অন্তরঙ্গ বন্ধু।
    65) কড়ি গোনা, কড়ি কাঠ গোনা-বেকার অবস্থা যাপন।
    66) ঘোড়া ডিঙ্গিয়ে ঘাস খাওয়া-মুরব্বিকে অতিক্রম বা অগাহ্য করে কার্যোদ্বায়ের চেষ্টা করা।
    67) ঘোড়া দেখে খোঁড়া হওয়া-কাজ করার লোক দেখে আলস্য দেখানো।
    68) ঘোড়ায় জিন দিয়ে আসা-অত্যন্ত ব্যতিব্যস্ত ভাব,তিলেক বিলম্বে অস্থিরতার ভাব।
    69) চোদ্দ চাকার রথ দেখানো-মুশকিলে ফেলা।
    70) চোর কুঠরি,চোর কুঠুরি-ঘরের ভিতরের চোট গুপ্ত ঘর।
    71) চোর মরে,সাত ঘর মজায়ে-চোর ধরা পড়লে অনেক মকদ্দমায় জড়ায়।
    72) বাড়িতে ছুঁচোর কেত্তন,বাইরে কোঁচার পত্তন-বাড়িতে চরম দরিদ্র অবস্থা বাইরে বড়লোকি প্রদর্শন।
    73) ছুঁচোর মেরে হাত গন্ধ করা- তুচ্ছ ব্যক্তিকে শাস্তি দিয়ে অখ্যাতি লাভ করা।
    74) ধারে কাটা আর ভারে কাটা-স্বাভাবিক ক্ষমতায় কাজ করা।
    75) যার ধন তার নয়,নেপোয় মারে দই-পরিশ্রমী ব্যক্তিকে বঞ্চনা করে ধূর্ত লোকের ফল প্রাপ্তি।
    76) আপনা মাংসে হরিনা বৈরি। – হরিনের শত্রু তার মাংশ।
    খুব গুরুত্বপূর্ণ বাংলা সমার্থক শব্দের এক বিশাল ভান্ডার …মোট ৯০ টি ..যে কোন জব ও ভর্তি পরীক্ষায় বাংলা অংশে প্রায় বাংলা শব্দের সমর্থক অর্থ থেকে প্রশ্ন আসে … কমন পাওয়ার জন্য এইগুলোই যথেষ্ট .
    :
    1) অগ্নি ⇒ অনল, পাবক, আগুন, দহন, সর্বভূক, শিখা, হুতাশন, বহ্নি, বৈশ্বানর, কৃশানু, বিভাবসু, সর্বশুচি
    2) অন্ধকার ⇒ আঁধার, তমঃ, তমিস্রা, তিমির, আন্ধার, তমস্র, তম
    3) অখন্ড ⇒ সম্পূর্ণ, আস্ত, গোটা, অক্ষত, পূর্ণ, সমগ্র, সমাগ্রিক।
    4) অবকাশ ⇒ সময়, ফূসরত, অবসর, ছুটি, সুযোগ, বিরাম।
    5) অক্লান্ত ⇒ ক্লান্তিহীন, শ্রান্তিহীন, অনলস, নিরলস, অদম্য, উদ্যমী, পরিশ্রমী, অশ্রান্ত।
    6) অপূর্ব ⇒ অদ্ভুত, আশ্চর্য, অলৌকিক, অপরূপ, অভিনব, বিস্ময়কর, আজব, তাজ্জব, চমকপ্রদ, অবাক করা, মনোরম, সুন্দর।
    7) অক্ষয় ⇒ চিরন্তন, ক্ষয়হীন, নাশহীন, অশেষ, অনন্ত, অব্যয়, অবিনাশী, অলয়, অনশ্বর, লয়হীন, অমর, স্থায়ী।
    8) অঙ্গ ⇒ দেহ, শরীর, অবয়ব, গা, গাত্র, বপু, তনু, গতর, কাঠামো, আকৃতি, দেহাংশ।
    9) অবস্থা ⇒ দশা, রকম, প্রকার, গতিক, হাল, স্তিতি, অবস্থান, পরিবেশ, ঘটনা, ব্যাপার, প্রসঙ্গ, হালচাল, স্টাটাস।
    10) আইন ⇒ বিধান, কানুন, বিহিতক, অধিনিয়ম, বিধি, অনুবিধি, উপবিধি, ধারা, বিল, নিয়ম, নিয়মাবলি, বিধিব্যবস্থা।
    11) আসল ⇒ খাঁটি, মূলধন, মৌলিক, মূল, প্রকৃত, যথার্থ।
    12) আনন্দ ⇒ হর্ষ, হরষ, পুলক, সুখ, স্ফূতর্ত, সন্তোষ, পরিতোষ, প্রসন্নতা, আমোদ, প্রমোদ, হাসি, উল্লাস, মজা, তুষ্টি, খুশি, হাসিখুশি।
    13) আদি ⇒ প্রথম, আরম্ভ, অগ্র, পূর্ব, প্রাচীন, মূল।
    14) অতনু ⇒ মদন, অনঙ্গ, কাম, কন্দর্প
    15) আকাশ ⇒ আসমান, অম্বর, গগন, নভোঃ, নভোমণ্ডল, খগ, ব্যোম, অন্তরীক্ষ
    16) আলোক ⇒ আলো, জ্যোতি, কিরণ, দীপ্তি, প্রভা
    17) ইচ্ছা ⇒ আকাঙ্ক্ষা, অভিলাষ, অভিরুচি, অভিপ্রায়, আগ্রহ, স্পৃহা, কামনা, বাসনা, বাঞ্চা, ঈপ্সা, ঈহা
    19) উঁচু ⇒ উচ্চ, তুঙ্গ, সমুন্নত, আকাশ-ছোঁয়া, গগনচূম্বী, অভ্রভেদী, অত্যুচ্চ, সুউচ্চ।
    20) উদাহরণ ⇒ দৃষ্টান্ত, নিদর্শন, নজির, নমুনা, উল্লেখ, অতিষ্ঠা।
    21) উত্তম ⇒ প্রকৃষ্ট, শ্রেষ্ঠ, সেরা, ভালো, অগ্রণী, অতুল।
    22) উত্তর ⇒ জবাব, প্রতিবাক্য, মীমাংশা, সাড়া, সিদ্ধান্ত।
    23) একতা ⇒ ঐক্য, মিলন, একত্ব, অভেদ, সংহতি, ঐক্যবদ্ধ, একাত্মতা, একীভাব।
    24) কপাল ⇒ ললাট, ভাল, ভাগ্য, অদৃষ্ট, নিয়তি, অলিক
    25) কোকিল ⇒ পরভৃত, পিক, বসন্তদূত
    26) কষ্ট ⇒ মেহনত, যন্ত্রনা, ক্লেশ, আয়াস, পরিশ্রম, দু:খ।
    27) কুল ⇒ বংশ, গোত্র, জাতি, বর্ণ, গণ, সমূহ, অনেক, যূথ, জাত, শ্রেণী, ইত্যাদি।
    28) খ্যাতি ⇒ যশ, প্রসিদ্ধি, সুখ্যাতি, সুনাম, নাম, সুবাদ, প্রখ্যাতি, সুযশ, বিখ্যাতি, নামযশ, নামডাক, প্রখ্যা, প্রচার, হাতযশ, প্রতিপত্তি, প্রতিষ্ঠা।
    29) কন্যা ⇒ মেয়ে, দুহিতা, দুলালী, আত্মজা, নন্দিনী, পুত্রী, সূতা, তনয়া
    30) গরু ⇒ গো, গাভী, ধেনু
    31) ঘোড়া ⇒ অশ্ব, ঘোটক, তুরগ, বাজি, হয়, তুরঙ্গ, তুরঙ্গম
    32) মেঘ ⇒ ঘন, অভ্র, নিবিড়, জলধর, গাঢ়, জমাট, গভীর।
    33) চাঁদ ⇒ সুধাকর, শশী, শশধর, দ্বিজরাজ, বিধু, সোম, নিশাপতি, সুধানিধি, রাকেশ, সুধাময়, ইন্দু, তারানাথ।
    34) চতুর ⇒ বুদ্ধিমান, নিপুণ, কুশল, ধূর্ত, ঠগ, চালাক, সপ্রতিভ।
    35) ঘর ⇒ গৃহ, আলয়, নিবাস, আবাস, আশ্রয়, নিলয়, নিকেতন, ভবন, সদন, বাড়ি, বাটী, বাসস্থান
    36) চক্ষু ⇒ চোখ, আঁখি, অক্ষি, লোচন, নেত্র, নয়ন, দর্শনেন্দ্রিয়
    37) চন্দ্র ⇒ চাঁদ, চন্দ্রমা, শশী, শশধর, শশাঙ্ক, শুধাংশু, হিমাংশু, সুধাকর, সুধাংশু, হিমাংশু, সোম, বিধু, ইন্দু, নিশাকর, নিশাকান্ত, মৃগাঙ্ক, রজনীকান্ত
    38) চুল ⇒ চিকুর, কুন্তল, কেশ, অলক,“
    39) জননী ⇒ মা, মাতা, প্রসূতি, গর্ভধারিণী, জন্মদাত্রী,“
    40) দিন ⇒ দিবা, দিবস, দিনমান
    41) দেবতা ⇒ অমর, দেব, সুর, ত্রিদশ, অমর, অজর, ঠাকুর
    42) দ্বন্দ্ব ⇒ বিরোধ, ঝগড়া, কলহ, বিবাদ, যুদ্ধ
    43) তীর ⇒ কূল, তট, পাড়, সৈকত, পুলিন, ধার, কিনারা
    44) নারী ⇒ রমণী, কামিনী, মহিলা, স্ত্রী, অবলা, স্ত্রীলোক, অঙ্গনা, ভাসিনী, ললনা, কান্তা, পত্নী, সীমন্তনী
    45) নদী ⇒ তটিনী, তরঙ্গিনী, প্রবাহিনী, শৈবালিনী, স্রোতস্বতী, স্রোতস্বিনী, গাঙ, স্বরিৎ, নির্ঝরিনী, কল্লোলিনী
    46) নৌকা ⇒ নাও, তরণী, জলযান, তরী
    47) পণ্ডিত ⇒ বিদ্বান, জ্ঞানী, বিজ্ঞ, অভিজ্ঞ
    48) পদ্ম ⇒ কমল, উৎপল, সরোজ, পঙ্কজ, নলিন, শতদল, রাজীব, কোকনদ, কুবলয়, পুণ্ডরীক, অরবিন্দ, ইন্দীবর, পুষ্কর, তামরস, মৃণাল, সরসিজ, কুমুদ
    49) পৃথিবী ⇒ ধরা, ধরিত্রী, ধরণী, অবনী, মেদিনী, পৃ, পৃথ্বী, ভূ, বসুধা, বসুন্ধরা, জাহান, জগৎ, দুনিয়া, ভূবন, বিশ্ব, ভূ-মণ্ডল
    50) পর্বত ⇒ শৈল, গিরি, পাহাড়, অচল, অটল, অদ্রি, চূড়া, ভূধর, নগ, শৃঙ্গী, শৃঙ্গধর, মহীধর, মহীন্দ্র
    51) পানি ⇒ জল, বারি, সলিল, উদক, অম্বু, নীর, পয়ঃ, তোয়, অপ, জীবন, পানীয়
    52) পুত্র ⇒ তনয়, সুত, আত্মজ, ছেলে, নন্দন
    53) পত্নী ⇒ জায়া, ভার্যা, ভামিনী, স্ত্রী, অর্ধাঙ্গী, সহধর্মিণী, জীবন সাথী, বউ, দারা, বনিতা, কলত্র, গৃহিণী, গিন্নী
    54) পাখি ⇒ পক্ষী, খেচর, বিহগ, বিহঙ্গ, বিহঙ্গম, পতত্রী, খগ, অণ্ডজ, শকুন্ত, দ্বিজ
    55) ফুল ⇒ পুষ্প, কুসুম, প্রসূন, রঙ্গন
    56) বৃক্ষ ⇒ গাছ, শাখী, বিটপী, অটবি, দ্রুম, মহীরূহ, তরু, পাদপ
    57) বন ⇒ অরণ্য, জঙ্গল, কানন, বিপিণ, কুঞ্জ, কান্তার, অটবি, বনানী, গহন
    58) বায়ু ⇒ বাতাস, অনিল, পবন, হাওয়া, সমীর, সমীরণ, মারুত, গন্ধবহ
    59) বিদ্যুত ⇒ বিজলী, ত্বড়িৎ, ক্ষণপ্রভা, সৌদামিনী, চপলা, চঞ্চলা, দামিনী, অচিরপ্রভা, শম্পা
    60) মানুষ ⇒ মানব, মনুষ্য, লোক, জন, নৃ, নর,“
    61) মাটি ⇒ ক্ষিতি, মৃত্তিকা,“
    62) দখল ⇒ অধিকার, আয়ত্ত, জ্ঞান, কতৃত্ব, অধীনতা, পটুতা।
    63) নারী ⇒ রমণী, রামা, বামা, অবলা, মহিলা, স্ত্রী, মেয়ে, মেয়েমানুষ, ললনা, মানবী, মানবিকা, কামিনী, আওরত, জেনানা, যোষা, জনি, বালা, বনিতা, ভামিনী, শর্বরী।
    64) বাতাস ⇒ বায়ু, পবন, সমীর, অনিল, মারুত, বাত, বায়, আশুগ, পবমান, সদাগতি, শব্দবহ, অগ্নিশখ, বহ্নিসখ, হাওয়া।
    65) মৃত্যু ⇒ মরা, ইন্তেকাল, বিনাশ, মরণ, নাশ, নিধন, নিপাত, প্রয়ান, লোকান্তরপ্রাপ্তি, চিরবিদায়, প্রাণত্যাগ, জীবননাশ, দেহান্ত, লোকান্তর, , মারা যাওয়া, পটল তোলা, মহাপ্রয়াণ।
    66) সমুদ্র ⇒ সাগর, সায়ব, অর্ণব, সিন্ধু, দরিয়া, জলধি, পাথার, পারাবার, প্রচেতা, অকূল, জলধর, নদীকান্ত, নীরধি, তোয়াধি, পয়োধি, বারিধর, বারীন্দ্র, ইরাবান, দ্বীপী।
    67) স্বর্ণ ⇒ সোনা, কাঞ্চন, কনক, হেম, হিরণ্য, মহাধাতু, গোল্ড।
    68) সম ⇒ সমান, তুল্য, সদৃশ, যুদ্ন, অনুরূপ।
    69) দিন ⇒ দিবস, দিবা, অহ, বার, রোজ, বাসর, দিনরাত্রি, দিনরজনী, সাবন, অষ্টপ্রহর, আটপ্রহর।
    70) নিদ্রা ⇒ ঘুম, তন্দ্রা, নিদ, সুপ্তি, গাঢ়ঘুম, নিষুপ্তি।
    71) ছাত্র ⇒ শিষ্য, শিক্ষানবিশ, পড়ুয়া।
    72) জটিল ⇒ জড়ানো, কঠিন, শক্ত, খটমট, জটাযুক্ত।
    73) ধরা ⇒ পৃথিবী, ধারণ করা, হাত দেয়া, ছোঁয়া, স্পশর্, ধরণি, ধরিত্রী, পাকড়ানো।
    74) কবুতর ⇒ পারাবত, কপোত, পায়রা, নোটন, লোটন, প্রাসাদকুক্কুট।
    75) দক্ষ ⇒ নিপুণ, পটু, পারদশী, কর্মঠ, সুনিপুন, কামিল।
    76) রাত্রি ⇒ রাত, রাত্তির, নিশি, নিশীথ, রাত, রজনী, যামিনী, যামী, যামিকা, শমনী, বিভাবরী, ক্ষণদা, নক্ত, তামসী, অসুরা।
    77) মেঘ ⇒ জলধর, জীমৃত, বারিদ, নীরদ, পয়োদ, ঘন, অম্বুদ, তায়দ, পয়োধর, বলাহক, তোয়ধর
    78) রাজা ⇒ নরপতি, নৃপতি, ভূপতি, বাদশাহ
    79) রাত ⇒ রাত্রি, রজনী, নিশি, যামিনী, শর্বরী, বিভাবরী, নিশা, নিশিথিনী, ক্ষণদা, ত্রিযামা
    80) শরীর ⇒ দেহ, বিগ্রহ, কায়, কলেবর, গা, গাত্র, তনু, অঙ্গ, অবয়ব
    81) সর্প ⇒ সাপ, অহি, আশীবিষ, উরহ, নাগ, নাগিনী, ভুজঙ্গ, ভুজগ, ভুজঙ্গম, সরীসৃপ, ফণী, ফণাধর, বিষধর, বায়ুভুক
    82) স্ত্রী ⇒ পত্নী, জায়া, সহধর্মিণী, ভার্যা, বেগম, বিবি, বধূ,“
    83) স্বর্ণ ⇒ সোনা, কনক, কাঞ্চন, সুবর্ণ, হেম, হিরণ্য, হিরণ
    84) স্বর্গ ⇒ দেবলোক, দ্যুলোক, বেহেশত, সুরলোক, দ্যু, ত্রিদশালয়, ইন্দ্রালয়, দিব্যলোক, জান্নাত
    85) সাহসী ⇒ অভীক, নির্ভীক,“
    86) সাগর ⇒ সমুদ্র, সিন্ধু, অর্ণব, জলধি, জলনিধি, বারিধি, পারাবার, রত্নাকর, বরুণ, দরিয়া, পারাবার, বারীন্দ্র, পাথার, বারীশ, পয়োনিধি, তোয়ধি, বারিনিধি, অম্বুধি
    87) সূর্য ⇒ রবি, সবিতা, দিবাকর, দিনমনি, দিননাথ, দিবাবসু, অর্ক, ভানু, তপন, আদিত্য, ভাস্কর, মার্তণ্ড, অংশু, প্রভাকর, কিরণমালী, অরুণ, মিহির, পুষা, সূর, মিত্র, দিনপতি, বালকি, অর্ষমা
    88) হাত ⇒ কর, বাহু, ভুজ, হস্ত, পাণি
    89) হস্তী ⇒ হাতি, করী, দন্তী, মাতঙ্গ, গজ, ঐরাবত, দ্বিপ, দ্বিরদ, বারণ, কুঞ্জর, নাগ
    90) লাল ⇒ লোহিত, রক্তবর্ণ
    91) ঢেউ ⇒ তরঙ্গ, ঊর্মি, লহরী, বীচি, মওজ
    বাগধারা:
    ১) “লম্বাদেয়া“ বাগধারাটির অর্থ
    উ: পালানো
    ২) “সাপের পাঁচ পা দেখা“ প্রবাদের অর্থ
    উ: অহংকারে অসম্ভবকে সম্ভব মনে করা।
    ৩) “ছক্কা পাঞ্জা“ করা মানে
    উ: বড়াই করা
    ৪) জঙ্গম এর বিপরীত শব্দ
    উ: স্থাবর
    ৫) “কুজন“ শব্দের অর্থ
    উ: পাখির ডাক
    ৬) “যে নারীর হাসি পবিত্র“ এক কথায় কি বলে?
    উ: সুচিস্মিতা
    ৭) Learn the poem by heart- এর সঠিক অর্থ
    উ: কবিতাটি মুখস্ত কর।
    ৮) Make good.এর সঠিক অনুবাদ
    উ: ক্ষতিপূরণ
    ৯) কোন যতিচিহ্নের বিরতিকাল পরিমাণ এক সেকেন্ড?
    উ: সেমিকোলন
    ১০) “রোনাল্ড“ একজন জনপ্রিয় খেলোয়াড়। এখানে “খেলোয়াড়“ কোন কারক?
    উ: কর্মকারক।
    ১১) “বসিরকে যেতে হবে“ বসিরকে কোন কারকে কোন বিভক্তি?
    উ: কর্তৃকারকে দ্বিতীয়া
    ১২) সমস্তপদকে ভেঙে যে বাক্যাংশ করা হয় তার নাম কি?
    উ: ব্যাসবাক্য বা বিগ্রহ বাক্য
    ১৩) প্রত্যেক পদের অর্থ প্রাধান্য পায় কোন সমাসে?
    উ: দ্বন্দ্ব সমাসে
    ১৪) “যা বলা যোগ্য নয়“ এক কথায় কি বলে
    উ: অব্যক্ত
    ১৫) “ঠোঁট কাটা“ বলতে কি বুঝায়?
    উ: স্পষ্টভাষী
    ১৬) বাগাড়ম্বর “ শব্দের সন্ধি বিচ্ছেদ কোনটি?
    উ: বাক্ +আড়ম্বর
    ১৭) সন্ধি সাধিত শব্দ “পরস্পর“ কোন ধরনের সন্ধির দৃষ্টান্ত?
    উ: নিপাতনে সিদ্ধ
    ১৮) Nero fiddles while Rome burns.এর অর্থ
    উ: কারো পৌষ মাস, কারো সর্বনাশ।
    ১৯) একটি অপূর্ণ বাক্যের পর অন্য একটি বাক্যের অবতারনা বোঝাতে কি চিহ্ন বসে?
    উ: কোলন
    ২০) Industry is the root of এর অর্থ
    উ: পরিশ্রম সৌভাগ্যের মূল
    ২১) Look before you leap. এর অর্থ
    উ: ভাবিয়া করিও কাজ
    ২২) বাক্যে কমা অপেক্ষা বেশি বিরতির প্রয়োজন হলে কি বসে?
    উ: সেমিকোলন
    ২৩) কোন যতিচিহ্নের জন্য সবচেয়ে বেশী সময় থামতে হয়?
    উ: দাঁড়ি
    * মৌলিক স্বরধ্বনি কতটি?– ৭ টি
    * যৌগিক স্বরধ্বনি কতটি?– ২ টি
    * মৌলিক স্বরধ্বনিগুলো কি কি?– অ, আ, ই, উ, এ,অ্যা, ও
    * যৌগিক স্বরধ্বনিগুলো কি কি?– ঔ, ঐ
    * কণ্ঠ বর্ণ কোনগুলি?– ক, খ, গ, ঘ, ঙ
    * তালব্য বর্ণ কোনগুলি?– চ, ছ, জ, ঝ, ঞ
    * মূর্ধণ বর্ণ কোনগুলি?– ট, ঠ, ড, ঢ, ণ
    * দন্ত বর্ণ কোনগুলি?– ত, থ, দ, ধ, ন
    * ওষ্ঠ বর্ণ কোনগুলি?– প, ফ, ব, ভ, ম
    * ঙ, ঞ, ণ, ন, ম — নাসিক্য বর্ণ
    * নাসিক্য বর্ণের অপর নাম কি?– অনুনাসিক বা
    সানুনাসিক বর্ণ
    * অন্তঃস্থ বর্ণ কোনগুলি?– য, র, ল
    * শ, ষ, স — শিশধ্বনি
    * ড়, ঢ় — তাড়নজাত ধ্বনি
    * খন্ডব্যঞ্জন কোনটি?– ৎ
    * অঘোষ হ ধ্বনির বর্ণরুপ কোনটি?– ঃ
    * পরাশ্রিত বর্ণ কোনগুলি?– ৎ, ং, ঃ
    * পূর্ণমাত্রার বর্ণ– ৩২টি
    * অর্ধমাত্রার বর্ণ– ৮টি
    * মাত্রাহীন বর্ণ– ১০টি
    * কোনটি নিলীন বর্ণ?– অ
    এক কথায় প্রকাশ
    ※ যে নারী প্রিয় কথা বলে = প্রিয়ংবদা।
    ※ যে নারী প্রিয় বাক্য বলে = প্রিয়ভাষী।
    ※ যে নারী নিজে বর বরণ করে নেয় = স্বয়ংবরা।
    ※ যে নারী (মেয়ের) বিয়ে হয়নি = কুমারী।
    ※ যে নারীর বিয়ে হয় না = অনূঢ়া।
    ※ যে নারীর সম্প্রতি বিয়ে হয়েছে = নবোঢ়া।
    ※ যে নারীর কোন সন্তান হয় না = বন্ধ্যা।
    ※ যে নারী জীবনে একমাত্র সন্তান প্রসব করেছে
    = কাকবন্ধ্যা।
    ※ যে নারীর সন্তান বাঁচে না = মৃতবৎসা।
    ※ যে নারীর স্বামী ও পুত্র মৃত = অবীরা। ※ যে নারীর স্বামী ও পুত্র জীবিত = বীরা বা পুরন্ধ্রী।
    ※ যে নারী বীর সন্তান প্রসব করে = বীরপ্রসূ।
    ※ যে নারী বীর = বীরাঙ্গনা।
    ※ যে নারী পূর্বে অন্যের স্ত্রী ছিল = অন্য পূর্বা।
    ※ যে নারী অন্য কারও প্রতি আসক্ত হয়না = অনন্যা।
    ※ যে নারী কখনো সূর্যকে দেখে নাই = অসূর্যম্পশ্যা।
    ※ নারীর অসূয়া (হিংসা) নেই = অনসূয়া।
    ※ যে নারীর হাসি সুন্দর = সুস্মিতা।
    ※ যে নারীর হাসি কুটিলতাবর্জিত = শুচিস্মিতা।
    ※ যে নারীর স্বামী বিদেশে থাকে = প্রোষিতভর্তৃকা।
    ★ যা গতিশীল=জঙ্গম
    ★কর দেয় যে=করদ
    ★পা ধুইবার জল=পাদ্য
    ★মাসের শেষ দিন=সংক্রান্তি
    ★নিজেকে বড় ভাবে যে=হামবড়া
    ★ক্লান্তি নাই যার=অক্লান্ত
    ★খেয়া পার করে যে=পাটনী
    ★আদি নাই যার=অনাদি
    ★একই সময়ে=যুগপত
    ★যে নারী বীর=বীরাঙ্গনা
    ★যে পুরুষ বিয়ে করেছে=কৃতদার
    ★গভীর রাত্রি=নিশীথ
    ★সর্বত্র গমন করে যে=সর্বগ
    ★যা বলা হয়েছে=উক্ত
    ★ফুল হইতে তৈরি=ফুলেল
    ★বাতাসে চরে যে=কপোত
    ★রন্ধনের যোগ্য=পাচ্য
    প্রবাদ
    1. চোর পালালে বুদ্ধি বাড়ে।
    = After death comes the doctor.
    – 2. অসময়ের বন্ধুই প্রকৃত বন্ধু।
    = A friend in need is a friend indeed.
    – 3. ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়।
    = Where there is will,there is a way.
    – 4. আয় বুঝে ব্যয় কর।
    = Cut your coat according to your cloth.
    – 5. যত গর্জে তত বর্ষে না।
    = Barking dog seldom bites.
    – 6. যেমন কর্ম তেমন ফল।
    = As you sow,so you reap.
    – 7. বাপকা বেটা;সিপাইকা ঘোড়া।
    = Like father like son.
    – 8. অতি লোভে তাতি নষ্ট।
    = Grasp all,lose all.
    – 9. এক হাতে তালি বাজে না।
    = It takes two to make a quarrel.
    – 10. পরিশ্রমই সৌভাগ্যের চাবিকাঠি।
    = Industry is the key to success.
    – 11. গাইতে গাইতে গায়েন।
    = Practice makes a man perfect.
    – 12. নাই মামার চেয়ে কানা মামা ভাল।
    = Something is better than nothing.
    khaled uz zaman sonju

৪০ তম বিসিএস প্রিলি ঃ- ৩রা মে

৪০ তম বিসিএস আগামি মে মাসের ৩ তারিখ

বিসিএস পরীক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ কিছু স্পেলিং দেখে নিন। BCS Spelling

সব চাকরির পরীক্ষাতে Spelling আসেই । প্রিলিতে ১একটা থাকবেই । তাই কিছু গুরুত্বপূর্ণ Spelling এবং যেগুলো বিভিন্ন চাকরির পরীক্ষায় এসেছিল নিয়মিত অনুশীলন করুন।
—————————————————
——————————————————–
১। Lieutenant ( লেফটেনেন্ট ) – সামরিক পদবি, বদলি, প্রতিনিধি।(I আর Eউল্টা পাল্লা করে দেয় এবং A এর জায়গায় E দেয় তাই মনে রাখুন আগে I তারপর, E এবং N-পর A )
✿ছন্দ—- Lie u ten ant- মিথ্যা তুমি দশ পিঁপড়া।
————————-✿——————————-
২। Psychological ( সাইকোলজিক্যাল ) – মনস্তাত্ত্বিক।( এখানে P, H না দেয়)
✿ছন্দ—- Psy cholo gi cal- পিসি চলো যাই কাল।
————————-✿——————————-
৩। Assassination ( এ্যাসএ্যাসিনেশন )- গুপ্তহত্যা।(এখানে S কম বেশি করে দে্য় এবং s পর e দেয় মনে রাখুন S জোড়ায় জোড়ায় থাকে)
✿ছন্দ—-Ass ass i nation – গাধা গাধা আমি জাতি।
————————-✿——————————-
৪। Questionnaire- প্রশ্নমালা। (এখানে nnaire -কে দিয়ে ঝামেলায় ফেলে দেয়)
✿—-ছন্দ—-Question nai re – কোশ্চেন নাই রে।
————————-✿——————————-
৫। Assessment – নির্ধারণ, পরিমাপ ,মূল্যায়ন।(এখানে S কম বেশি করে দেয় তাই মনে রাখুন S জোড়ায় জোড়ায় থাকে)
✿ছন্দ—-Ass e ss men t- গাধায় ই ডাবল ss মানুষেতে নাই।
————————-✿——————————-
৬। Hallucination- অমুলক / অলীক কিছু দেখা বা তাতে বিশ্বাস।এখানে মনে রাখুন L ডাবল এবং C এর I )
✿ছন্দ—-Hall u ci nation- হলে তুমি! ছি জাতি।(
————————-✿——————————-
৭। Diarrhoea- উদারাময়।(এখানে I, A E এর অবস্থান পরিবর্তন করে দেয় এবং R কম বেশি করে দেয়)
✿ছন্দ—-Dia rr hoea – ডায়াল করো ডাবল rr হয়ে যাবে।
————————-✿——————————-
৮। Bureaucracy- আমলাতন্ত্র।(এখানে U E,A এর অবস্থান উল্টা পাল্টা করে দেয় তাই reau -টি ভালো করে মনে রাখুন।
✿ছন্দ—-Burea u cracy- বুড়িয়া তুমি cracy.
————————-✿——————————-
৯। Restaurant- রেস্টুরেন্ট।(এখানে Tপর U দেয় এবং Rপর E দেয় তাই মনে রাখুন tau এবং rant)
✿ছন্দ—-Rest a u r ant – বিশ্রাম এ তুমি আর পিঁপড়া।
————————-✿——————————-
১০। Parallel- সমান্তরাল।এখানে L কম বেশি ও A এর জায়গায় E দেয়)
✿ছন্দ—-Par all e l -পার করো সকলকে ই।
————————-✿——————————-
১১। Illegitimate- অবৈধ।(এখানে L কম দেয় , I না দিয়ে E দেয় এবং শেষের E দেয় না )
✿ছন্দ—-Il leg i tim ate – অসুস্থ পায় আমি টিম খেয়েছিলাম।
————————-✿——————————-
১২। Miscellaneous- বিবিধ।(এখানে L কম দেয় ও একসঙ্গে S ডাবল দেয় এবং eous উল্টা পাল্টা করে দেয় তাই মনে শেষে eous আছে ও M এর S একটি এবং Lদুটি
✿ছন্দ—-Mis cell an e o us- মিস করলে একটি সেলে ই ও আমাদের সাথে থাকবে।
(cell-ক্ষুদ্র কক্ষ)
——————————
এছাড়াও বিভিন্ন চাকরির পরীক্ষার আসা গুরুত্বপূর্ণ কিছু শব্দের বানানগুলো ভালো করে দেখে রাখুন।এই বানান গুলোতে যেখানে খটকা লাগে বা পরীক্ষাতে এলোমেলো করে দেওয়া থাকে সেগুলো ক্লিয়ার করে দিলাম।

1.Tuition (U এর পর I ও শন এ T )
2. Misspell( দুটো S ও দুটো L)
3. Humorous(এটা >>rous)
4. Welcome(ডাবল L হয় না )
5.Shakespeare ( K পর ই)
4.Somerset Maugham( মম)
5.Separate ( S এর E এবং R এর পর A)
6.Acknowledgement (L এর পর D তারপর G)
7.Tremendous
8.Committee( ডাবল M ও ডাবল T এবং ডাবলE)
9. Professional( ডাবল S)
10. Aggression (ডাবলG, ডাবলS)
11.Challenge (ডাবল L)
12. Occasion (ডাবল C , শন-এ S )
13.Perseverance(V এর পরE এবং R এর পর A )
14.Transparency (
15.Restaurant ( মনে রাখুন রেসটাউর‌্যান্ট >> T এর পর A ,U এবং Rএর পর A )
16.Depression (ডাবল S )
17. Catalogue( শেষে gue)
18. Collaegue (ডাবল L)
19. Maintenance(T‘র পর E এবং N এর পর A)
20. Expedient (D এর পর I)
21.Intention (শন এ T)
22.Recession (ডাবল S)
23. Acquaintance (Q এরপর U ,Aএবং টির পর A )
24. Questionnaire (কোয়েসশন নাইরে)
25.Quarrel ( Q এরপরU A এবং ডাবল R)
26.Triumph
27. Conveyance
28.Fulfill(ফুল এ ডাবল L নয়)
29. Dysentery (D এরপর Y )
30. Cholera
31.Abhorrence (ডাবল R)
32.Posthumous
33.Secretariat (এটা মনে রাখুন riat । টির পর কিছু নাই।
34.Supercilious
35.Ascertain( A এরপর S )
36.Millennium(ডাবল Lও N)
37.Millionaire (মিল্লিওনাইর)
38.Bouquet
39. Collaboration(ডাবল L)
40. Dilemma (ডাবল M )
41.Accommodation (ডাবল C ও ডাবল M)
42.Possession (ডাবল ডাবল S)
43.Tuberculosis( এল এরপর ও)
44. Accessories( ডাবল C, ডাবল S)
45.Attainment ( ডাবল T)
46. Discussion (ডাবল S)
47.Achievement (ch এর পর I তারপর E )
48. Messenger (ডাবল Sও GপরE )
49. Marriage( শেষের age)
50. Beginning (ডাবল N )
51. Indispensable( S এরপরA , I নয় )
52.Transfiguration
53.Attendance (ডাবলT)
54.Receive (C পর E তারপর I)
55. Belief / Believe (L এর পর আগে I তারপর E)
56.Scintillation (প্রথমের S)
57. Commentary (ডাবল M ও টি‘র পর A)
58.Heterogeneous (এটা >neous)
59. Commission (ডাবল M , ডাবল S )
————————————————————————–
নিজের সুবিধামতো সময়ে পড়তে শেয়ার করে নিজের টাইমলাইনে রাখুন।

৪০তম বিসিএস প্রিলি কবে হবে – উত্তর দিলেন মোহাম্মদ সাদিক

৪০তম বিসিএস প্রিলি কবে হবে ?

৪০তম বিসিএসে আবেদন করেছেন ৪ লাখ ১২ হাজার ৫৩২ জন প্রার্থী। এ পর্যন্ত পিএসসিতে এত বিপুল পরীক্ষার্থী আবেদনের রেকর্ড তৈরি হয়েছে।

কীভাবে এত প্রার্থীর পরীক্ষা নেওয়া যায় সে জন্য এখন পরিকল্পনা করছে পিএসসি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মোহাম্মদ সাদিক বলেন এ বছরের এপ্রিল মাসের মধ্যে প্রিলিমিনারি পরীক্ষা নেওয়ার সম্ভাবনা আছে।

যেহেতু এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা আছে। এর ফাঁকে কীভাবে পরীক্ষাটি সুষ্ঠুভাবে নেওয়া যায় তার জন্য আমরা কাজ করছি।
।।
এসএসসি পরীক্ষা -ফেব্রুয়ারি, এইচএসসি পরীক্ষা – এপ্রিল।
ফাঁকে ত মার্চ থাকে

”স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন, ভেবে নিয়েছেন যে স্বপ্নটা সত্যি হবার মত” – অভিজিৎ ৩৩তম বিসিএস

অভিজিৎ বসাক
বিসিএস(প্রশাসন)
৩৩তম বিসিএস

হয়ত আপনি কোন কিছু নিয়ে স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন, ভেবে নিয়েছেন যে স্বপ্নটা সত্যি হবার মত কিন্তু কোন এক অজানা কারণে আপনার সেই স্বপ্নটা এমন এক বাঁধার সম্মুখীন হল যা থেকে বের হবার আপাতত কোন উপায় নেই…

হয়ত আপনি কাউকে পছন্দ করতে শুরু করেছেন। ভাবছেন খুব সুন্দর করে তাকে সামনে যে কোন দিন মনের কথাগুলো বলবেন। কিন্তু শুনলেন যে সেই পছন্দের মানুষ আপনাকে উপেক্ষা করার জন্য ১০১ টা দুর্বল পয়েন্ট খুঁজে রেখেছে আপনার…

হয়ত আপনার পারিবারিক কোন সমস্যা আপনাকে অনেক কষ্ট দিচ্ছে, আপনার অনেক দিনের গোছানো পরিকল্পনাগুলো ভেঙ্গে যাচ্ছে সমস্যাগুলোর কারণে…
হয়ত মানুষ হিসেবে আপনি অনেক স্বপ্নবাজ, অনেক বড় কিছু করার স্বপ্ন দেখেন। কিন্তু আপনার চারপাশের মানুষজন আপনার বা আপনার পরিবারের অর্থনৈতিক অবস্থা খারাপ হবার কারণে আপনাকে উপহাস করে…

আপনার নিজের অনেক সম্ভাবনা থাকার পরও আপনার প্রিয় মানুষ বা প্রিয় মানুষের বাসার মানুষজন আপনাকে মেনে নিতে রাজী নয়…

খুব চেষ্টা করে যাচ্ছেন কিন্তু কিছুতেই নিজের মত করে কিছু করতে পারছেন না বা কোনকিছু অর্জন করতে বারবার ব্যর্থ হচ্ছেন …

এইরকম অনেক কিছুই ঘটে যেতে পারে….

এসবের কোন কিছুই আপনি আপনার মাথায় নেবেন না। খারাপ সময় জীবনে আসবেই। এটা মেনে নিতে হবে। খারাপ সময়ে চুপচাপ থাকুন। নিজের প্রতিভা ও দৃঢ়তা নিয়ে খারাপ সময়ের সাথে লড়াই করুন। খারাপ সময় দূর হবেই। কাউকে জবাব দেয়ার উপযুক্ত উপায় হলো সব বাঁধা জয় করে টিকে থেকে বীরের মত নিজেকে জানান দেওয়া, মুখ দিয়ে তর্ক করা নয়। যারা সমালোচনা করে আপনার, তারা আপনার অফুরন্ত সম্ভাবনা ও আত্মপ্রত্যয় সম্পর্কে ধারণা রাখে না। আর এই প্রত্যয়টুকু হলো আপনার সামনে চলার শক্তি। চারপাশের মানুষের কথায়, কখনও নিজেকে ছোট ভাববেন না। নিজেকে ব্যর্থ মনে করবেন না। যতক্ষণ পর্যন্ত আপনি নিজে নিজেকে ব্যর্থ বা পরাজিত ভাবছেন না, ততক্ষণ পর্যন্ত আপনার সম্ভাবনা হাতছানি দেবে আপনার সামনে। এগিয়ে যান, নিজেকে মেলে ধরুন, জয় শুধু সময়ের ব্যাপার মাত্র……………

“All Birds find shelter during a rain. But Eagle avoids rain by flying above the Clouds.
Problems are common, but attitude makes the difference!!!”
― A.P.J. Abdul Kalam

বিসিএস প্রস্তুতিঃ সাম্প্রতিক তথ্য 

সাম্প্রতিক তথ্য
১। বিশ্ব বাংলা গেট কোথায় অবস্থিত?
= কলকাতা, ভারত
২ । ইয়েমেন সরকার এবং হুতি বিদ্রোহীদের মধ্যে শান্তি চুক্তি কবে সম্পাদিত হয় ?
= ৬ ডিসেম্বর , ২০১৮ 
৩। মিস ওয়াল্ড- ২০১৮ তে কে চ্যাম্পিয়ন হন?
মেক্সিকান সুন্দরী ভ্যানেসা পন্তে দে লিওন।
৪। প্রথম বিশ্বযুদ্ধ সমাপ্তির শতবর্ষ

পালিত হয়—
= ১১ নভেম্বর ২০১৮
৫। প্রথমবারের মতো আফগান সরকার ও তালেবানদের মধ্যে আন্তর্জাতিক সম্মেলন কোথায় অনুষ্ঠিত হয়?

= রাশিয়া
৬। দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় দেশগুলোর সংগঠন ‘আসিয়ান’-এর ৩৩তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় কোথায়?
= সিঙ্গাপুর
৭ । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জীবন ও কর্মের ওপর নির্মিত তথ্যচিত্রের নাম কী?
=হাসিনা : এ ডটার’স টেল
৮ । ‘স্ট্যান লি’ ছিলেন একজন—
=রাজনীতিবিদ
৯ । সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা পরিমাপের কোন এককটির নতুন সংজ্ঞা নির্ণয় করেছেন?
= কিলোগ্রাম
১০ । ‘এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অর্থনৈতিক সহযোগিতা’র (এপেক) ৩০তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় কোথায়?
=পাপুয়া নিউগিনি
১১। সবচেয়ে কম বয়সী টেস্ট অভিষিক্ত বোলার হিসেবে পাঁচ উইকেট নেওয়ার বিশ্বরেকর্ড করেছে কোন বাংলাদেশি
=নাঈম হাসান
১২। ইন্টারপোল’-এর বর্তমান প্রেসিডেন্টের

নাম কী?
=মেং হং হয়ে

১৩ । জাতিসংঘের মাদক ও অপরাধ বিষয়ক দপ্তরের তথ্য মতে, নারীদের ওপর সহিংসতার দিক থেকে সবচেয়ে বিপজ্জনক কোন মহাদেশ?
= আফ্রিকা
১৪ । সম্প্রতি নাসার মহাকাশযান ‘ইনসাইট’ কোন গ্রহে অবতরণ করে?

= মঙ্গল
১৫। পাকিস্তানে অনুষ্ঠেয় সার্ক সম্মেলনে যোগদানের আমন্ত্রণপত্র প্রত্যাখ্যান করেছে কোন দেশ?
= ভারত
১৬ । বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা (ডাব্লিউটিও) থেকে সরে যাওয়ার হুমকি দিয়েছে কোন দেশ?

= যুক্তরাষ্ট্র
১৭ । ‘জি-২০’ শীর্ষক অর্থনৈতিক জোটের ১৩তম সম্মেলন কোথায় অনুষ্ঠিত হয়?

= আর্জেন্টিনা
১৮ । বীরপ্রতীক তারামন বিবি মুক্তিযুদ্ধে কত নম্বর সেক্টরে যুদ্ধ করেন?
=১১
১৯ । ‘গ্লোবাল ওয়েলথ রিপোর্ট ২০১৮’ অনুযায়ী প্রাপ্তবয়স্কদের মাথাপিছু সম্পদ হিসেবে বিশ্বের শীর্ষ ধনী দেশ-
= সিঙ্গাপুর
২০ । সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী বিসিএস ক্যাডার সংখ্যা কতটি?
= ২৬
২১ । সম্প্রতি দেশের কোন জেলায় প্রায় ১২০০ বছর পূর্বের বৌদ্ধদের প্রাচীন নিবেদন স্তূপের সন্ধান পাওয়া গেছে?

= বগুড়া

৪০ তম বিসিএস প্রিলি প্রস্তুতি ২০১৯ + প্রাথমিক শিক্ষক + মাধ্যমিক শিক্ষক

প্রাথমিক শিক্ষক+ মাধ্যমিক শিক্ষক+৪০ তম বিসিএস প্রিলি প্রস্তুতি ২০১৯

**অর্থনৈতিক সমীক্ষা ২০১৮
————————————————–
১। মোট জনসংখ্যা = ১৬ কোটি ৮ লক্ষ।
২। জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার = ১.৩৭%
৩। পুরুষ – মহিলা অনুপাত = ১০০.৩ঃ১০০
৪। জনসংখ্যার ঘনত্ব = ১০৯০ জন (বর্গ কি:মি)
৫। এক বছরের কম বয়সী শিশু মৃত্যুহার = ২৮ জন (প্রতি হাজারে)
৬। প্রত্যাশিত গড় আয়ু = ৭১.৬ বছর
৭। সাক্ষরতার হার = ৭১%
৮। দারিদ্র্যের ঊর্ধ্বসীমা = ২৪.৩%
৯। দারিদ্র্যের নিম্নসীমা = ১২.৯%
১০। GDP প্রবৃদ্ধির হার = ৭.৬৫%
১১। চলতি মূল্যে মাথাপিছু আয় = ১৭৫২ মার্কিন ডলার
১২। চলতি মূল্যে মাথাপিছু GDP = ১৬৭৭ মার্কিন ডলার
১৩। মূল্যস্ফীতি = ৫.৮৩% (জুলাই ১৭- এপ্রিল ১৮)
১৪। মোট ব্যাংক = ৫৭ টি
> রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংক ৬ টি,
>বিশেষায়িত ব্যাংক ২ টি,
>বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক ৪০ টি,
>বৈদেশিক ব্যাংক ৯ টি
>ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠান ৩৪ টি
>মোট বীমা ৭৮ টি, সরকারি জীবন বীমা ১ টি, সাধারণ বীমা ১ টি, বিদেশি বীমা ১টি।
১৫। সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স আসে = সৌদিআরব থেকে
১৫। সবচেয়ে বেশি রপ্তানি করা হয় = যুক্তরাষ্ট্র
১৬। সবচেয়ে বেশি আমদানি করা হয় = চীন
১৭। ঔষধ রপ্তানি করা হয় = ১৪৫ টি দেশে
১৮। মোট স্থাপিত বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা = ১৩,৮৪৬ মেগাওয়াট
১৯। মোট বিদ্যুৎ উৎপাদন = ৩৫,৪৭৪ মিলিয়ন কিলোওয়াট -ঘণ্টা
২০। আবিষ্কৃত মোট গ্যাসক্ষেত্র = ২৭ টি
২১। প্রাকৃতিক গ্যাসের প্রাথমিক মোট মজুদ = ৩৯.৯ ট্রিলিয়ন ঘনফুট
২২। প্রাকৃতিক গ্যাসের উত্তোলনযোগ্য মজুদ = ২৭.৭৬ ট্রিলিয়ন ঘনফুট
২৩। মোবাইল গ্রাহক = ১৪.৭ কোটি
২৪। ইন্টারনেট ইউজার = ৮.০৮ কোটি
২৫। বাংলাদেশ বেশি বৈদেশিক সাহায্য পায় = জাপান থেকে
২৬। সংস্থা হিসেবে বাংলাদেশ বেশি বৈদেশিক সাহায্য পায় = IDA থেকে
২৭। GDP তে অবদান (সাময়িক)
কৃষি = ১৪.১০%
শিল্প = ৩৩.৭১%
সেবা = ৫২.১৮%

[N.B. পরিসংখ্যান ব্যুরোর রিপোর্ট অনুযায়ী বাংলাদেশের মানুষের গড় আয়ু ৭২ বছর]।
***২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের বাজেট:
¤ তম: ৪৮ তম বাজেট (একটি অন্তবর্তীকালীন বাজেটসহ)
¤ বাজেট ঘোষণা/উপস্থাপন করা হয়: ০৭ জুন, ২০১৮।
¤ বাজেট পাশ : ২৮ জুন, ২০১৮।
¤ বাজেটের আকার : ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা।
¤ বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে (ADP) বরাদ্ধ : ১লাখ ৭৩ হাজার কোটি টাকা।

¤ জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার ধরা হয়েছে : ৭.৮০%
¤ মূল্যস্ফীতির হার ধরা হয়েছে : ৫.৬%
¤ সবচেয়ে বেশি বাজেট বরাদ্দ জনপ্রশাসন : ৮৩, ৫০৯ কোটি
¤ দ্বিতীয় সবচেয়ে বেশি বাজেট বরাদ্দ শিক্ষা ও প্রযুক্তি খাতে = ৬৭,৯৪৪ কোটি
¤ করমুক্ত আয়সীমা: সাধারণ সীমা (ব্যক্তি শ্রেণি) : ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা।
বিশ্বকাপ ফুটবল -২০১৮
চ্যাম্পিয়ন: ফ্রান্স (গোল লাইন ৪-২, এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বচ্যাম্পিয়ন। এ পর্যন্ত মোট ৮টি দেশ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে।);
রানার্স আপ: ক্রোয়েশিয়া (ক্রোয়েশিয়া ইউরোপের একটি বলকান রাষ্ট্র);
তৃতীয় স্থান: বেলজিয়াম;
ফেয়ার প্লে পুরস্কার: স্পেন;
★বিশ্বকাপ ফাইনাল ম্যাচের স্টেডিয়াম: লুঝকিনি স্টেডিয়াম, মস্কো;
★গোল্ডেন বল (আসরের সেরা খেলোয়ার): লুকা মড্রিচ (ক্রোয়েশিয়া);
★গোল্ডেন বুট (আসরের সর্বোচ্চ গোলদাতা): হ্যারি কেইন (ইংল্যান্ড, ৬ গোল);
★গোল্ডেন গ্লাভস (আসরের সেরা গোলরক্ষক): থিওবাথ কর্তোয়া (বেলজিয়াম);
★সিলভার বল (আসরের সেরা ইমার্জিং প্লেয়ার): কিলিয়ান এমবাপ্পে (ফ্রান্স);
★ফাইনালের ম্যান অফ দ্য ম্যাচ: গ্রিজম্যান (ফ্রান্স);
এবারের আসরের প্রথম গোল: ইউরি গাজিনস্কি (রাশিয়া);
এবারের আসরে মোট হ্যাট্রিক: ২টি [১ম- ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো (স্পেনের বিপক্ষে), ২য়- হ্যারি কেইন (পানামার বিপক্ষে)];
প্রথমবারের মতো সংযোজন: V.A.R. (Video Assistant Referee);
বিশ্বকাপ মাসকট: জাবিভাকা (ZABIVAKA), অর্থ- জংলী নেকড়ে;
বিশ্বকাপ থিম সং: Live it up (শিল্পী- নিকি জেম);
এবারের আসর: ২১তম (আয়োজক- রাশিয়া);
মোট যতটি শহরে খেলা অনুষ্ঠিত হয়: ১১টি;
মোট ম্যাচের সংখ্যা: ৬৪টি;
মোট অংশগ্রহণকারী দেশ: ৩২টি (এদের মধ্যে মুসলিম দেশ ৭টি);
প্রথমবারের মতো অংশগ্রহণ: ২টি দেশ (পানামা ও আইসল্যান্ড);
দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলা একমাত্র এশিয় দেশ: জাপান;
বিশ্বকাপের বলের নাম: টেলস্টার ১৮ (প্রথম রাউন্ড পর্যন্ত) এবং টেলস্টার মেচতা (দ্বিতীয় রাউন্ড থেকে ফাইনাল পর্যন্ত);
আগামী ২০২২ (২২তম) বিশ্বকাপ: আয়োজক দেশ- কাতার (মোট ৩২টি দেশ অংশ নেবে);
পরবর্তী ২০২৬ (২৩তম) বিশ্বকাপ: আয়োজক দেশ- মেক্সিকো, যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা (মোট ৪৮টি দেশ অংশ নেবে)
বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী বাংলাদেশে সবমিলিয়ে ৫৭+৬ = ৬৩ টি ব্যাংক আছে। কোন ধরণের ব্যাংক কতটি চলুন জেনে নেই। বর্তমানে দেশে প্রধানত দুই ধরনের ব্যাংক রয়েছে।
1. তফসিলী ব্যাংক (৫৭)
2. অ-তফসিলী ব্যাংক (৬)
তফসিলী ব্যাংকঃ যে সকল ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংকের শর্তসমূহ মেনে নিয়ে এর তালিকায় অন্তর্ভূক্ত হয় তাকে তফসিলী ব্যাংক বলে । তফসিলী ব্যাংকগুলো ব্যাংক কোম্পানী অ্যাক্ট, ১৯৯১ (সংশোধিত ২০০৩) এর অধীনে কাজ করে। দেশে বর্তমানে ৫৭ টি তফসিলী ব্যাংক আছে। তফসিলী ব্যাংকগুলো নিম্নরুপ হয়ে থাকে।
1. বাণিজ্যিক ব্যাংক (৫৫)
2. বিশেষায়িত ব্যাংক (২)

বাণিজ্যক ব্যাংকঃ যে ব্যাংক জনগনের সঞ্চিত অর্থ আমানত হিসেবে রাখে এবং ব্যবসা-বাণিজ্যে ও শিল্প প্রতিষ্ঠানকে স্বল্প মেয়াদী ঋণ দেয় তাকে বাণিজ্যিক ব্যাংক বলে। এসব ব্যাংককে স্বল্প মেয়াদী ঋণের ব্যবসায়ীও বলা হয়। বাংলাদেশে দুই ধরনের বাণিজ্যিক ব্যাংক আছে।
1. রাষ্ট্রায়ত্ত বাণিজ্যিক ব্যাংক (৬)
2. ব্যক্তিমালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংক (৪০)
3. বিদেশী বাণিজ্যিক ব্যাংক (৯)
রাষ্ট্রায়ত্ত বাণিজ্যিক ব্যাংকঃ যে সকল বাণিজ্যিক ব্যাংক সরকারী উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত বা সরকার কর্তৃক জাতীয়করণকৃত তাকে রাষ্ট্রায়ত্ত বাণিজ্যিক ব্যাংক বলে। রাষ্ট্রায়ত্ত বাণিজ্যিক ব্যাংক ৬ টি।
১। সোনালী ব্যাংক লিমিটেড
২। অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড
৩। রূপালী ব্যাংক লিমিটেড

৪। জনতা ব্যাংক লিমিটেড
৫। বেসিক ব্যাংক লিমিটেড
৬। বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেড
ব্যক্তিমালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংকঃ যে সকল বাণিজ্যিক ব্যাংক জনগনের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত এবং জনগন কর্তৃক পরিচালিত হয় তাকে ব্যক্তিমালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংক বলে। ব্যক্তিমালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংক রয়েছে মোট ৪০ টি। এগুলোকে আবার দুই ভাগে করা যায় ।
১। প্রথাগত ব্যক্তিমালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংক (৩২)
২। ইসলামী শরীয়াহ ভিত্তিক ব্যক্তিমালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংক (৮)
৩২ টি প্রথাগত ব্যক্তিমালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংকের তালিকা নিম্নরূপ।
১। ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড
২। ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড
৩। পূবালী ব্যাংক লিমিটেড
৪। ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড
৫। ডাচ-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড
৬। এবি ব্যাংক লিমিটেড
৭। ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড
৮। উত্তরা ব্যাংক লিমিটেড
৯। ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড
১০। মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক
১১। যমুনা ব্যাংক লিমিটেড
১২। প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেড
১৩। স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেড

১৪। ইস্টার্ণ ব্যাংক লিমিটেড
১৫। আইএফআইসি ব্যাংক লিমিটেড
১৬। দি সিটি ব্যাংক লিমিটেড
১৭। এনসিসি ব্যাংক লিমিটেড
১৮। মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেড
১৯। প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড
২০। সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড
২১। ওয়ান ব্যাংক লিমিটেড
২২। বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক লিমিটেড
২৩। ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড
২৪। এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক লিমিটেড
২৫। এনআরবি ব্যাংক লিমিটেড
২৬। এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেড
২৭। মেঘনা ব্যাংক লিমিটেড
২৮। ফার্মারস ব্যাংক লিমিটেড
২৯। মধুমতি ব্যাংক লিমিটেড
৩০। সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার এন্ড কমার্স ব্যাংক লিমিটেড
৩১। মিডল্যান্ড ব্যাংক লিমিটেড
৩২। সীমান্ত ব্যাংক লিমিটেড
৮ টি ইসলামী শরীয়াহ ভিত্তিক ব্যক্তিমালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংকের তালিকা নিম্নরূপ।
১। ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড
২। আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড
৩। ফার্স্ট সিকিউরিটিজ ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড
৪। আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক লিমিটেড
৫। শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড
৬। এক্সপোর্ট ইম্পোর্ট ব্যাংক অফ বাংলাদেশ লিমিটেড
৭। সোশ্যাইল ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড
৮। ইউনিয়ন ব্যাংক লিমিটেড

৯ টি বিদেশী বাণিজ্যিক ব্যাংকের তালিকা নিম্নরূপ।
১। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক লিমিটেড
২। হংকং সাংহাই ব্যাংকিং কর্পোরেশন (এইচএসবিসি)
৩। সিটিব্যাংক এনএ (ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন)
৪। কমার্শিয়াল ব্যাংক অব সিলন
৫। স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া
৬। হাবিব ব্যাংক লিমিটেড
৭। ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান
৮। ওরি ব্যাংক
৯। ব্যাংক আলফালাহ্
বিশেষায়িত ব্যাংকঃ বিশেষ খাতের উন্নয়নের জন্য যে সব ব্যাংক প্রতিষ্ঠা লাভ করে তাকে বিশেষায়িত ব্যাংক বলে। রাষ্ট্রায়ত্ত বিশেষায়িত ব্যাংক ২ টি।
১। বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক (রাষ্ট্রায়ত্ত)
২। রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক (রাষ্ট্রায়ত্ত)
অ-তফসিলী ব্যাংকঃ যে সকল ব্যাংক কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নিয়ম-নীতি মেনে চলার শর্তে এর তালিকায় অন্তর্ভূক্ত হয় না তাকে অ-তফসিলী ব্যাংক বলে। দেশে ৬ টি অ-তফসিলী ব্যাংক রয়েছে।
1. আনসার ভিডিপি উন্ন্য়ন ব্যাংক (রাষ্ট্রায়ত্ত)
2. কর্মসংস্থান ব্যাংক (রাষ্ট্রায়ত্ত)
3. প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক (রাষ্ট্রায়ত্ত)
4. জূবিলী ব্যাংক
5. গ্রামীণ ব্যাংক (আধা-সরকারী)
6. পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক (রাষ্ট্রায়ত্ত)

মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক প্রামাণ্য চলচ্চিত্র
==================
চলচ্চিত্রের নাম – পরিচালক
Stop Genocide জহির রায়হান
A State is Born জহির রায়হান
Liberation Fighters আলমগীর কবির
Innocent Fighters বাবুল চৌধুরী
মুক্তির গান তারেক মাসুদ ও ক্যাথরিন মাসুদ
মুক্তির কথা তারেক মাসুদ ও ক্যাথরিন মাসুদ
স্মৃতি’৭১ তানভির মোকাম্মেল ।

মুক্তিযুদ্ধোত্তর পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র
=================
চলচ্চিত্রের নাম – পরিচালক
ওরা ১১ জন (১৯৭২) -চাষী নজরুল ইসলাম
সংগ্রাম (১৯৭৪) -চাষী নজরুল ইসলাম
হাঙর নদী গ্রেনেড -চাষী নজরুল ইসলাম
আবার তোরা মানুষ হ (১৯৭৩) -খান আতাউর রহমান
এখনও অনেক রাত (১৯৯৭) -খান আতাউর রহমান
রক্তাক্ত বাঙ্গালি -মমতাজ বাঙ্গালি
ধীরে বহে মেঘনা -আলমগীর কবির
রূপালী সৈকত -আলমগীর কবির
কলমী লতা -শহীদুল হক খান

বাঘা বাঙ্গালি -আনন্দ
কার হাসি কে হাসে -আনন্দ
আগুনের পরশমনি -হুমায়ূন আহম্মেদ
ইতিহাস কন্যা -শামীম আখতার
আমার জন্মভূমি -আলমগীর কুমকুম
আলোর মিছিল -নারায়ণ ঘোষ মিতা
মেঘের অনেক রং -হারুনুর রশিদ
স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র
চলচ্চিত্রের নাম পরিচালক
একাত্তরের যীশু -নাসির উদ্দীন ইউসুফ
নদীর নাম মধুমতি -তানভীর মোকাম্মেল
হুলিয়া -তানভীর মোকাম্মেল
প্রত্যাবর্তন -মোস্তফা কামাল
পতাকা -এনায়েত করিম বাবুল
আগামী -মোরশেদুল ইসলাম
দুরন্ত -খান আখতার হোসেন
একজন মুক্তিযোদ্ধা -দিলদার হোসেন
ধূসর যাত্রা -আবু সায়ীদ
বখাটে -হাসিবুল ইসলাম হাবিব
শরৎ একাত্তর -মোরশেদুল ইসলাম

Length, Width & Duration
—————-
1. Length of Padma Bridge is — 6.15 km
2. Width of Padma Bridge is — 18.10 m.
3. Length of Jamuna Bridge is —- 4.8 km.
4. Width of Jamuna Bridge is — 18.50 m.
5. Length of Cox’s Bazar–Tekhnaf marine drive is— 80km (World’s longest)
6. Length of Proposed karnofuli tunnel— 3.4 km
7. Length of Dhaka Metro rail (MRT)—20.10km
8. Length of BRT (Bus Rapid Transit)— 20.5km
9. Duration of 7th Five year plan——2016-2020
10. Duration of Perspective Plan—–2010-2021(vision-2021)
11. Duration of SDG—-2016-2023